নিউ ইয়র্ক সিটি ভ্রমণ

নিউ ইয়র্ক সিটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম শহর। শহরটি নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যের অন্তর্ভুক্ত এবং এক সময় এই রাজ্যের রাজধানী ছিল। এমনকি এই শহরটি এক সময় সমগ্র যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ছিল। এই রাজ্যের রাজধানী অ্যালবানি এবং বৃহত্তম শহর নিউ ইয়র্ক সিটি। নিউ ইয়র্ক সিটি সমগ্র যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে জনবহুল শহর। একে শুধু নিউ ইয়র্ক নামেও ডাকা হয়ে থাকে। বর্তমান বিশ্বে নিউ ইয়র্ক সিটি অন্যতম প্রধান বাণিজ্যিক, অর্থনৈতিক, সাংস্কৃতিক ও শিক্ষা কেন্দ্র। বিশ্বব্যাপী এর রাজনীতি, মিডিয়া, বিনোদন, ফ্যাশনের প্রভাব বিশেষ উল্লেখযোগ্য। জাতিসংঘের সদর দপ্তর এখানে অবস্থিত যার কারণে একে আন্তর্জাতিক কূটনীতির তীর্থস্থান বলা যায়।

নিউ ইয়র্ক শুনেই ঘাবড়ে যাবেন না। বড় শহর মানেই নিরাপত্তার অভাব এমনটা মনে করার কোনও কারণই নেই। ফিনানশিয়াল কনসালটিং ফার্ম ভ্যালু পিঙ্গুইন আমেরিকার নিরাপদ শহরের মধ্যে তৃতীয় স্থানে রেখেছে নিউ ইয়র্ককে। মেয়েরা এখানে যথেষ্টই নিরাপদ। নিউ ইয়র্ক শহরে দেখার জিনিস ও জায়গার কোনও অভাব নেই। হাতে রুট ম্যাপ নিয়ে নিশ্চিন্তে বেরিয়ে পড়ুন।

বিশ্বের ব্যস্ততম ১০ পর্যটন শহর প্রতিবছর বিশ্বের নানা প্রান্তের লোকজন ছুটে আসে এসব শহরে। দিন কি রাত, টুরিস্টদের আনাগোনা এখানে নিত্যদিনের। আকর্ষণীয় পর্যটন ব্যবস্থাপনা, পাঁচতারকা মানের বিলাশ বহুল হোটেল, অ্যামিউজমেন্ট পার্ক, প্রকৃতির অসাধারণ সব নৈসর্গিক দৃশ্য আর পরিবেশ এবং মানুশের সৃষ্টি আশ্চর্য সব স্থাপনা এই শহরগুলোকে করে তুলেছে পৃথিবীর সবচাইতে বেশি সংখ্যার পর্যটকদের পছন্দের যায়গা। সেই ব্যস্ততম ১০টি পর্যটন শহরের মধ্যে অসাধারণ সব স্থাপত্য শৈলী এবং পৃথিবীর অন্যতম সব শ্রেষ্ঠ জাদুঘরের শহর নিউ ইয়র্ক।



বলার অপেক্ষা রাখে না যে নিউ ইয়র্ককে সৌন্দর্য ও ইতিহাসের প্রতিনিধি স্ট্যাচু অফ লিবার্টি এই শহরের সব চাইতে বড় টুরিস্ট আকর্ষণ। এছাড়াও এম্পায়ার স্টেট বিল্ডিং, এলিস আইল্যান্ড, ব্রডওয়ে থিয়েটার। বিখ্যাত যাদুঘরগুলো যেমন মেট্রোপলিটন মুসিয়াম অফ আর্ট, ন্যাচারাল হিস্ট্রি মুসিয়াম। মনকি সবুজ পার্কগুলো যেমন সেন্ট্রাল পার্ক, ওয়াশিংটন স্কোয়ার পার্ক।

রোকেফেলের সেন্টার, টাইমস স্কোয়ার, এগুলো তো আছেই। আকর্ষণীয় সব ডিজাইনের উদ্যান এবং বাগান, বিখ্যাত সব জাদুঘর এবং প্রাচীন স্থাপত্যকলার নিদর্শন– এসবই এই শহরের মুখ্য আকর্ষণ। কোনটা রেখে কোনটা দেখবেন, ভাবতে আপনাকে হবেই। সেই সাথে ঐতিহ্য আর সংস্কৃতিই টুরিস্টদের বেশি আকর্ষণ করার অন্যতম কারণ। সাথে ভোজন রসিকদের রসনা বিলাসের বিশ্বখ্যাত খাবারের স্বাদতো আছই।

নিউ ইয়র্ক বিশ্বের প্রধান অর্থনৈতিক কেন্দ্র। আর বিলাসী পণ্যের বিশাল সমাহার তো আছেই। মন ভরে করতে পারবেন শপিং। সাথে নানারঙের আর নানা ঢঙের
বিচিত্র সব সংস্কৃতির হাতছানিতো আছেই। বিভিন্ন ধর্মের মানুষের চমৎকার সহবস্থান আছে আছে এই শহরে, যা আপনাকে মুগ্ধ করবেই করবে। তাইতো বছরে এই শহরে প্রায় ৮.৭ মিলিয়ন পর্যটকের আনা-গোনা লেগেই থাকে। আধুনিক বিশ্বের সবচেয়ে চিত্তাকর্ষক স্থাপত্যের জয়জয়কার এই শহরটি ঘিরে। নিউ ইয়র্ক শহরে একের পর এক গড়ে উঠা, বিশ্বের সব চাইতে উঁচু সব স্থাপনা আর স্থাপত্যের নাম গুলো মনে আছে নিশ্চয়?